মঙ্গলবার, অক্টোবর ২০, ২০২০
দেশজুড়ে ডেস্ক
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
৮:৩৩ অপরাহ্ণ
জয়পুরহাটে বড়াইল ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর অনিয়মের দায়ে বরখাস্ত
জয়পুরহাটে বড়াইল ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর অনিয়মের দায়ে বরখাস্ত-thetopnews24.com

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৮:৩৩ অপরাহ্ণ

আখতারুজ্জামান তালুকদার, জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ

জয়পুরহাটে ক্ষেতলাল উপজেলার বড়াইল ইউপি চেয়ারম্যান আবু রাশেদ আলমগীরকে একাধিক অনিয়মের অভিযোগে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রানালয়।

জানা যায়, ২২সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ৪৬.০০.৩৮০০.০১৭.২৭.০০১.১৬-৯৮৪ নং স্মারকে স্থানীয় সরকার বিভাগ, ইউনিয়ন পরিষদ-১ শাখার উপসচিব মোহাম্মদ ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে জেলার ক্ষেতলাল উপজেলার বড়াইল ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আবু রাশেদ আলমগীরকে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ দিয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে ভিজিএফ তালিকায় কাটাকাটি/ফ্লুইট ব্যবহার করে উপজেলা কমিটির অনুমোদন ছাড়াই যাচাই বাছাই না করে নতুন ১০ জনের নাম অন্তর্ভুক্ত করন, পৌরসভার ২ জন মহিলা বাসিন্দাকে ভিজিএফ সুবিধা প্রদান ও অবৈধভাবে এক মহিলাকে ১৬ মাস ৩০ কেজি করে চাল বিতরণের অভিযোগ প্রাথমিক তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় জেলা প্রশাসক জয়পুরহাট এর সুপারিশে স্থানীয় সরকার বিভাগ ৯৮৩ নং স্মারকের প্রজ্ঞাপনে জনস্বার্থে সাময়িক তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে আরো বলা হয়েছে সাময়িক বরখাস্তকৃত চেয়ারম্যানকে পত্র প্রাপ্তির ১০ (দশ) কার্য দিবসের মধ্য তাকে কেন চেয়ারম্যান পদ থেকে চুড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা হবে না মর্মে জবাব দিতে বলা হয়েছে। ক্ষেতলাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ.এফ.এম আবু সুফিয়ান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় ইপ-১ অধিশাখা হতে বরখাস্তের একটি প্রজ্ঞাপন পেয়েছি।

এ বিষয়ে সাময়িক বরখাস্তকৃত বড়াইল ইউপি চেয়ারম্যান আবু রাশেদ আলমগীর বলেন, একটি মহল মন্ত্রনালয়ে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে আমাকে হেয় করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আমার বিশ্বাস সত্য প্রামনিত হবে। আমি অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণ করে আবার স্বপদে বহাল হব।

সম্পর্কিত খবর